• ঢাকা

  •  রোববার, জানুয়ারি ২৯, ২০২৩

ভিনদেশ

স্বামীর মতোই বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলো কো-পাইলট অঞ্জুর

অনলাইন ডেস্ক:

 আপডেট: ১৩:৫১, ১৭ জানুয়ারি ২০২৩

স্বামীর মতোই বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলো কো-পাইলট অঞ্জুর

দশ বছর আগে এমনই এক বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছিলেন তার স্বামী। তিনিও ছিলেন বিমানের কো-পাইলট। ঘটনাচক্রে সেটিও ছিল এই ইয়েতি এয়ারলাইন্সেরই একটি বিমান। দশ বছর পরে একই ভাবে প্রাণ হারালেন অঞ্জু খাতিওয়াড়া (Anju Khatiwada)। রবিবার (১৪ জানুয়ারি) নেপালে ভেঙে পড়া ইয়েতি এয়ারলাইন্সের অভিশপ্ত এটিআর বিমানের কো-পাইলট ছিলেন অঞ্জু।

স্বামীর মতোই একইভাবে প্রাণ গেলো তার। শুধু তাই নয়, স্বপ্নপূরণের মাত্র কয়েক সেকেন্ড আগেই থেমে গেলো অঞ্জুর যাত্রা। কারণ এই বিমানটি সফলভাবে অবতরণ করাতে পারলেই কো-পাইলট থেকে ক্য়াপ্টেন হিসেবে উন্নীত হতেন অঞ্জু। যা ছিল তার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন।

কো-পাইলট থেকে পাইলট বা ক্য়াপ্টেন পদে উন্নীত হওয়ার জন্য় অন্তত ১০০ ঘণ্টা বিমান ওড়ানোর অভিজ্ঞতা থাকা প্রয়োজন। রবিবার পোখরার নতুন বিমানবন্দরে ইয়েতি এয়ারলাইন্সের এই বিমান নিয়ে অবতরণ করতে পারলেই সেই মাপকাঠি পেরিয়ে যেতেন অঞ্জু। বিমান অবতরণের জন্য় খুব বেশি হলে আর দশ সেকেন্ড সময় লাগতো। কিন্তু মুহূর্তের মধ্য়ে তালগোল পাকিয়ে গেল সবকিছু। অভিশপ্ত বিমানের আগুনের মধ্য়েই পুড়ে ছাই হয়ে গেলো অঞ্জু স্বপ্ন।

১৪ জানুয়ারি নেপালের পোখরায় ভেঙে পড়া ইয়েতি এয়ারলাইন্সের এটিআর ৭২ বিমানটির পাইলট ছিলেন কমল কে সি। আর অঞ্জু ছিলেন কো-পাইলট। কমল কে সি অঞ্জুর প্রশিক্ষকও ছিলেন।

১৬ বছর আগে ২০০৬ সালের ২১ জুন নেপালেই একটি বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্য়ু হয়েছিল অঞ্জুর স্বামী দীপক পোখরেলের। তিনিও ছিলেন ইয়েতি এয়ারলাইন্সের সেই বিমানের কো-পাইলট। সেই দুর্ঘটনায় মৃত্য়ু হয়েছিল ছয় জন যাত্রী এবং চার বিমানকর্মীর। অঞ্জুর মৃত্য়ুও হলো একইভাবে। এটাকে কি বলবেন, নিয়তি নাকি মর্মান্তিক সমাপতন? 

এর আগে সবক্ষেত্রেই কো-পাইলট হিসেবে সফলভাবে নেপালের বিভিন্ন বিমানবন্দরে অবতরণ করেছেন অঞ্জু। কিন্তু স্বপ্নপূরণের শেষ ধাপে এসে তার জীবনটাই শেষ হয়ে গেলো।

কীভাবে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটলো, তা নিয়ে নানা মত উঠে আসছে। পাইলটের ভুল ছিল কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে।

রবিবার ইয়েতি এয়ারলাইন্সের ওই বিমানের যিনি পাইলট ছিলেন, সেই কমল কে সি'র বিমান চালনায় ৩৫ বছরের অভিজ্ঞতা ছিল। অতীতে বহু শিক্ষনবীশ পাইলটদের প্রশিক্ষণ দিয়েছেন তিনি। যারা আজ সফল পাইলট হিসেবে পরিচিত।

নেপালে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় বিমানে থাকা প্রত্য়েকেরই মৃত্য়ু হয়েছে। এর মধ্য়ে ৬৮ জন দেশি-বিদেশি যাত্রী এবং ৪ জন বিমানকর্মী ছিলেন।

জানুয়ারি ১৭, ২০২৩

এসবিডি/এবি/

মন্তব্য করুন: