• ঢাকা

  •  সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

জীবন-যাপন

শীতকালে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে রেহাই পেতে খান আলুবোখরা

অনলাইন ডেস্ক:

 প্রকাশিত: ০৯:০০, ২৪ নভেম্বর ২০২২

শীতকালে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে রেহাই পেতে খান আলুবোখরা

শীতকাল আসলেই অনেক পুরনো অসুখ মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। এরমধ্যে একটি হলো কোষ্ঠকাঠিন্য। যাদের সারাবছরই কমবেশি এই সমস্যায় ভোগেন, শীতকাল এলে তাদের এই সমস্যা আরো বেড়ে যায়। এর একটি বড় কারন হলো ভূরিভোজ। 

শীতে পিকনিক, বিয়ে, ভ্রমণ এসব অনেক বেশি হয়। এতে খাওয়াদাওয়ায় একটু এ দিক-ও দিক হলেই পেট ফাঁপার সমস্যায় ভোগেন অনেকে। কোষ্ঠকাঠিন্য, গ্যাস কিংবা হজমের বিভিন্ন সমস্যা দিনের পর দিন বাড়তে থাকলে হতে পারে সমস্যা, তাই দরকার চটজলদি সমাধান।

অনেক হোটেলে বিরিয়ানি খাওয়ার সময় প্লেটে পড়ে টক-মিষ্টি ফল আলুবোখরা। মিষ্টি চাটনিতে এই ফল পড়লে স্বাদ বেড়ে যায় কয়েক গুণ। তবে এ দেশে আলাদা করে ফল হিসেবে আলুবোখরা খাওয়ার চল নেই বললেই চলে।

পুষ্টিবিদদের মতে, খাদ্যতালিকায় আলুবোখরা রাখতে পারলেই কোষ্ঠকাঠিন্য ছাড়াও পেটের নানা সমস্যা থেকে রেহাই মিলতে পারে। তাহলে কী কী স্বাস্থ্যগুণ রয়েছে এই ফলে?

মহিলাদের বয়স বছর পঞ্চাশ পেরোলেই তারা হাড়-সংক্রান্ত নানান সমস্যায় ভুগতে শুরু করেন। গাঁটের ব্যথা, বাতের ব্যথা এই বয়সের মহিলাদের লেগেই থাকে। সামান্য আঘাতেই হাড় ভেঙে যাওয়ার মতো সমস্যায় পড়তে হয়। ব্যথা হওয়ায় হাঁটতে-চলতেও নানা সমস্যা হয়ে থাকে। 

গবেষকরা জানাচ্ছেন, আগে থেকেই নিয়মিত আলুবোখরা খাওয়ার অভ্যাস থাকলে নিয়ন্ত্রণে থাকবে এই সমস্যা।  আলুবোখরায় বোরন, পটাশিয়াম ও ভিটামিন কে প্রচুর থাকে যা হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে দারুণ উপকারী।

শীতকালে জ্বর-সর্দি-কাশি লেগেই থাকে। এই সময়ে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে রোজের ডায়েটে আলুবোখরা রাখতে পারেন। এই ফল অ্যান্টি-অক্সিড্যান্টে ভরপুর। তাই ভাইরাস ও ব্যাক্টেরিয়ার হানা থেকে বাঁচতে এই ফল খেতে পারেন।

এই ফলে ভালো মাত্রায় ফাইবার থাকে। এ প্রকার দ্রবণীয় ফাইবার শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। তাই কোলেস্টেরল থাকলে ডায়েটে এই ফল রাখা ভালো। হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখতেও এই ফল উপকারী।

আলুবোখরা কী ভাবে খাওয়া যায়?

যে কোনো স্যালাডে ব্যবহার করা যায় আলুবোখরা। খিদে পেলে স্ন্যাকস হিসেবেও খেতে পারেন এই ফল। তাছাড়া স্মুদিতে এটি ব্যবহার করা যেতে পারে। এ ছাড়াও এক গ্লাস জলে একটা আলুবোখরা ভিজিয়ে রেখে পরের দিন জলসমেত ফলটি খেয়ে ফেলতে পারেন।

নভেম্বর ২৪, ২০২২

এসবিডি/এবি/

মন্তব্য করুন: