• ঢাকা

  •  সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

অর্থ ও কৃষি

চাটমোহরের রোপা আমন চাষীদের মুখে হাসির ঝিলিক

ইকবাল কবীর রনজু, পাবনা প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৭:৫৫, ১৯ নভেম্বর ২০২২

চাটমোহরের রোপা আমন চাষীদের মুখে হাসির ঝিলিক

চাটমোহরে রোপা আমন ধান কাটা চলছে পুরোদমে। বড়গুয়াখড়া মাঠ থেকে ছবিটি তোলা হয়েছে।

পাবনা: চলনবিল অধ্যুষিত পাবনার চাটমোহরে চলতি মৌসুমে রোপা আমন ধানের ভালো ফলন হচ্ছে। কৃষক ধানা কাটা ও মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। ধানের ফলন ও দাম ভালো পাওয়ায় কৃষকের চোখে মুখে এখন হাসির ঝিলিক।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে চাটমোহরে ৭ হাজার ৪৩০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। অর্জন হয়েছে ৭ হাজার ৬১০ হেক্টর। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৮০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধান চাষ বেশি হয়েছে।

উপজেলার গুনাইগাছা ইউনিয়নের বড় শালিখা গ্রামের রোপা আমন চাষী আফসার আলী সময়বিডি.কম-কে জানান, এক বিঘা জমিতে রোপা আমন ধান আবাদে জমি চাষ, বীজ, চারা রোপন, আগাছা অপসারণ, সার, কীটনাশক ও কাটা বাবদ খরচ হয় ১১ হাজার টাকা। বিঘায় ফলন হচ্ছে ১৬ থেকে ১৮ মণ। সেচযন্ত্রের মালিককে এক পঞ্চমাংশ ধান জমি থেকেই দিয়ে আসতে হচ্ছে। বিঘায় কৃষকের টিকছে প্রায় ১২ মণ ধান যার বাজার মূল্য প্রায় ১৫ হাজার টাকা। দুই হাজার টাকার খড় পাওয়া যাচ্ছে প্রতি বিঘা জমি থেকে। ফলে বিঘা প্রতি কৃষকের লাভ থাকছে প্রায় ৬ হাজার টাকা।

বিলচলন ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের কৃষক ইনামুল হোসেন জানান, ধানের দাম যেমন বেড়েছে তেমনি কৃষি উপকরণের দামও বেড়েছে। রোপা আমন চাষ করে কৃষক বিঘা প্রতি প্রায় ৫ হাজার টাকা লাভ করতে পারছেন।
     
এ ব্যাপারে চাটমোহর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ এ মাসুম বিল্লাহ জানান, চাটমোহরে সাধারণত ব্রি-৩৯, ৪৯, ৫৬, ৭১, ৭৫, ৮৭ ও বীনা ৭, ১৭, ২২ জাতের রোপা আমন ধান চাষ হয়। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ভালো ধান হয়েছে। হেক্টর প্রতি প্রায় সাড়ে ৪ টনেরও বেশি গড় ফলন পাওয়া যাচ্ছে। রোপা আমন ধান চাষ করে কৃষক লাভবান হচ্ছেন।

নভেম্বর ১৯, ২০২২

ইকবাল কবীর রনজু/এবি/

মন্তব্য করুন: