• ঢাকা

  •  সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

অপরাধ

৫ বছরেও শেষ হয়নি চাঞ্চল্যকর রুপা হত্যা মামলার বিচারিক কাজ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১২:৩৪, ২৫ আগস্ট ২০২২

৫ বছরেও শেষ হয়নি চাঞ্চল্যকর রুপা হত্যা মামলার বিচারিক কাজ

সিরাজগঞ্জ: টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে জাকিয়া সুলতানা রূপাকে গণধর্ষন ও হত্যা মামলা আজ (২৫ আগস্ট)  পাঁচ বছর পূর্ণ হচ্ছে। গত পাঁচ বছরেও শেষ হয়নি এ চাঞ্চল্যকর ঘটনায় করা মামলার বিচারকাজ।

অবশ্য রূপা হত্যা মামলার বাদী রুপার বড়ভাই মো.হাফিজুর রহমান বলেন, মহামান্য হাইকোর্টে সাড়ে চার বছর যাবত মামলাটির আপিল শুনানিই শুরুই হয়নি। মুলতঃ দীর্ঘ সময়ে মামলাটি অগ্রগতি না হওয়ায় আমাদের পরিবারের বিচার পাওয়ায় আশার প্রহর শেষও হচ্ছেনা।

তিনি আরো বলেন, এখন অল্প সময়ে আমরা বিচার পাওয়ার আশা নিয়ে রীতিমতো হতাশ হয়ে পড়েছি।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা শেষে বগুড়া থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার পথে সিরাজগঞ্জের তাড়াশ পৌর এলাকার আসানবাড়ি মহল্লার মৃত. জেল হক প্রামানিকের মেয়ে মেধাবী তরুণী রূপাকে চলন্ত বাসে পরিবহন শ্রমিকরা গণধর্ষণ ও হত্যা করে টাঙ্গাইল জেলার মধুপুর উপজেলায় পঁচিশ মাইল এলাকায় বনের মধ্যে দেহ ফেলে রেখে যায়। আর সে সময় রূপার পরিচয় না পাওয়ায় পুলিশ বাদী হয়ে মধুপুর থানায় গণধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পরেরদিন বাদী তার বোনের মরদেহ শনাক্ত করে। ২৮ আগস্ট এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ছোঁয়া পরিবহনের হেলপার শামীম, আকরাম ও জাহাঙ্গীর এবং চালক হাবিবুর ও সুপারভাইজার সফর আলীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে প্রত্যেক আসামীই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। 

পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি টাঙ্গাইলে নারী শিশু নির্যাতন ট্রাইবুনালের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক আবুল মনসুর মিয়া রূপা হত্যা মামলার রায়ে ৪ আসামীর ফাঁসি ও ১ জনের ৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও আর্থিক জরিমানার রায় ঘোষণা করেন। এ ছাড়া ছোঁয়া পরিবহণের সেই বাসটি রূপার পরিবারকে ক্ষতি পূরণ হিসেবে প্রদানেরও আদেশ প্রদান করেন। 

এর পর সাজাপ্রাপ্ত সকল আসামী খালাস চেয়ে মহামান্য হাইকোটে আপিল করেন। সে থেকে গত সাড়ে চার বছর যাবত মামলাটির আপিল শুনানি শুরু হয়নি। 

আগস্ট ২৫, ২০২২

মৃণাল সরকার মিলু/এবি/

মন্তব্য করুন: