• ঢাকা

  •  সোমবার, মার্চ ৪, ২০২৪

জেলার খবর

গৌরীপুরে ভাতিজার ‘অত্যাচারে’ বাড়িছাড়া থাকার অভিযোগ চাচার

গৌরীপুর প্রতিনিধি:

 প্রকাশিত: ০৮:৫৩, ১১ এপ্রিল ২০২৩

গৌরীপুরে ভাতিজার ‘অত্যাচারে’ বাড়িছাড়া থাকার অভিযোগ চাচার

ছবি: সময়বিডি.কম

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ): ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ভাতিজার ‘অত্যাচারে’ অতিষ্ঠ হয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে পালিতপুত্রের শ্বশুড়বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন নবী নেওয়াজ খান (৬২)। এই ঘটনাটি উপজেলার অচিন্তপুর ইউনিয়নের মুখরিয়া গ্রামের উত্তরপাড়ায়।

এ প্রসঙ্গে চাচা নবী নেওয়াজ খান বলেন, তার কোনো সন্তানাদি না থাকায় জুয়েল খান হেলালকে (৪২) ৫ মাসের শিশু থাকাবস্থায় দত্তক নিয়ে ১২০ শতাংশ জমি লিখে দেন। এতে ভাতিজা রুবেল খান ক্ষুব্ধ হয়ে বিভিন্ন সময় তাকে নানাভাবে অত্যাচার করতে থাকে। তিনি তাকে ও পালিতপুত্রের পরিবারকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে জমি বেদখল করার অভিযোগ করেন রুবেলের বিরুদ্ধে।
 
তিনি বলেন, গত ১০ ফেব্রুয়ারি রুবেল মিয়া বাঁশঝাড়সহ নানা জাতের গাছপালা ও ফসলাদি ধ্বংস করে পালিতপুত্রের স্ত্রী  আসমাকে উপর্যুপরি কিলঘুষি মেরে শ্লীলতাহানী করে মারাত্মক জখম করে। পরে আসমা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেন। পরে আসমা বাদী হয়ে রুবেলের বিরুদ্ধে কোর্টে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং১০৮/২০২৩ সন।

নবী নেওয়াজ খান সাংবাদিকদের জানান, ‘আমার আপন ভাতিজা রুবেল খান অত্যাচার করে আমিসহ আমার পালিতপুত্র জুয়েল, পুত্রবধূ আসমা, দুই নাতিকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে জমি বাড়ি তার দখলে নেয়। বর্তমানে প্রাণভয়ে পালিত পুত্রের শ্বশুরবাড়ি পাশ্ববর্তী ইউনিয়নের সোনাকান্দি গ্রামে আশ্রয় নিয়েছি।’

এদিকে ভাতিজা রুবেল খান বলেন, ‘আমার চাচাকে বাড়ি থেকে বের করিনি, তিনি স্বইচ্ছায় পরিবারসহ চলে গেছে। আমি বাড়ি জমিও দখল করিনি। বার বার তাগিদ করলেও আমার কাছে বিক্রি করা জমি চাচা রেজিস্ট্রি করে দেয়নি। আমার কাছে বিক্রিত জমি আমার দখলে নিয়েছি। আমি মারধোর করিনি বরং চাচা নবীনেওয়াজ তার পালিতপুত্র জুয়েল ও তার স্ত্রী আসমা বিগত ৩১ ডিসেম্বর লাটিসোটা নিয়ে আমার বাড়িতে হামলা, লুটপাট, ভাংচুর করে লক্ষাধিক টাকা মালামাল নিয়া যায়। এ ব্যাপারে গৌরীপুর থানায় আমি বাদী হয়ে মামলা দায়ের করি। মামলা নং-০১ তাং০২/০১/২০২৩।’

এপ্রিল ১১, ২০২৩

রায়হান/এবি/

মন্তব্য করুন: