• ঢাকা

  •  সোমবার, মার্চ ৪, ২০২৪

জেলার খবর

পরিচয় মিলেছে জো বাইডেনের কথিত উপদেষ্টার

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ০৮:৪৪, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

পরিচয় মিলেছে জো বাইডেনের কথিত উপদেষ্টার

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের হাতে আটক হওয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কথিত উপদেষ্টা পরিচয়দানকারী মিয়া জাহিদুল ইসলাম আরেফী ওরফে বেলালের পরিচয় মিলেছে । 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পৈতৃক সূত্রে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের মানিকদিয়ার গ্রামে তাদের বাড়ি ছিল। বর্তমানে বাড়িঘর না থাকলেও তাদের জমি জমা ও সম্পত্তি রয়েছে।

তার বাবার নাম মৃত রওশন আলী। তিনি সাবেক জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ছিলেন। পাবনা শহরের রাঘবপুর ঢুলিপাড়ার শায়েস্তা খাঁ মসজিদের পাশে তারা দীর্ঘদিন বসবাস করেছেন বলে জানা গেছে। রওশন আলীর ছয় ছেলে ও চার মেয়ের মধ্যে মিয়া আরেফী তৃতীয়। তার ডাকনাম বেলাল ।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, মিয়া আরেফী ওরফে বেলাল ছাত্রজীবন থেকেই ছিলেন ভিন্নরকম। ১৯৭৫ সালে পাবনা জেলা স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। নাটোরের আব্দুল্লাহপুর কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করে ছাত্রবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। তার সব ভাই বোনই যুক্তরাষ্ট্রের প্রবাসী।

আরও জানা গেছে, কয়েকটি বিশেষ কাজে চলতি বছরের জুলাই  মাসের প্রথম সপ্তাহে উল্লাপাড়া উপজেলায় এসেছিলেন তিনি। কাজের বিষয় নিয়ে কথাও হয়েছিল স্থানীয় মানুষদের সাথে এবং তখনও পরিচয় দিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টে জো বাইডেনের উপদেষ্টা।

এ বিষয়ে সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, আরেফীর বাবা মৃত রওশন মণ্ডল পাবনা জেলার শিক্ষা কর্মকর্তা ছিলেন। তারা ভাইবোনরা ৩০-৩৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে আমেরিকায় অবস্থান করছেন। তারা খুব একটা এলাকায় আসেন না। এলাকার লোকজনের সাথে তাদের তেমন যোগাযোগও নেই। এছাড়া, আরেফী যখন উল্লাপাড়া এসে ডাকবাংলোতে ছিলেন, তখন তিনি সাবেক এমপি এম আকবর আলীর গাড়িতে চলাচল করতেন বলে জানা গেছে।

ওসি আরও বলেন, তিনি ছাত্রাবস্থাতেই পরিবারের সাথে আমেরিকায় যান। সেখানে তিনি ডেমোক্র্যাটিক পার্টির রাজনীতিতে যুক্ত বলে জেনেছি। তবে তিনি এলাকায় এলে নিজেকে জো বাইডেনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হিসেবে পরিচয় দেন। মানিকদিয়ার গ্রাম বা উল্লাপাড়ায় তার কোনো বাড়ি নেই। তার দাদা-দাদির জন্য দোয়া মাহফিল করতে গত জুলাই মাসে এসেছিলেন। তখন তিনি উল্লাপাড়া ডাকবাংলোয় ছিলেন।  

উল্লাপাড়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার অমৃত সূত্রধর বলেন, আরেফী গত জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে উল্লাপাড়াতে এসেছিলেন। তখন তিনি বলেছিলেন, আমি আমেরিকার সিটিজেন, অনেকদিন পরে দেশে এসেছি। এলাকার কিছু লোকজনকে খাওয়াবেন বলে জানিয়েছিলেন। যেহেতু তার এলাকাতে কোনো বাড়ি নেই, তাই তিনি ডাকবাংলোর একটি রুম নিয়েছিলেন। তবে জো বাইডেনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এমন পরিচয় দিলেও তখন বিষয়টি ওভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। এলাকায় বাড়িঘর না থাকায় তাকে উপজেলা ডাকবাংলোতে একটা ঘর দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, আমি শুনেছি সাবেক এমপি আকবর আলীর সাথে তার ঘনিষ্ঠতা আছে। আরেফী তার গাড়িতে করে ঘোরাফেরা করেছেন। তার স্থানীয় আত্মীয় স্বজনরা কেউ সরাসরি রাজনীতির সাথে জড়িত কিনা সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

পাবনা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অবস্) মো. জিয়াউর রহমান জানান, তার বিষয়ে পাবনায় আরো খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জানতে সিরাজগঞ্জ-৪ (উল্লাপাড়া) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপি নেতা এম আকবর আলীর মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

অক্টোবর ৩১, ২০২৩

এসবিডি/এবি/

মন্তব্য করুন: