• ঢাকা

  •  সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

অপরাধ

আলমডাঙ্গায় জোড়া খুনের রহস্য উদঘাটন

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৬:৫৪, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

আলমডাঙ্গায় জোড়া খুনের রহস্য উদঘাটন

ছবি: সময়বিডি.কম

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় বৃদ্ধ দম্পতি হত্যার ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। ওই ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে চার যুবককে। মূলত  নগদ টাকা লুট করার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে ওই বৃদ্ধ দম্পতিকে হত্যা করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মলেনে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন।

তিনি জানান, ঘটনার পর নিহত নজির উদ্দিনের মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে সর্বোচ্চ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় অভিযান চালিয়ে হত্যাকাণ্ডের মূল হোতাসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওই হত্যাকাণ্ডে নিহত নজির উদ্দিনের ট্রলিড্রাইভার শাহাবুল হকসহ অন্য আসামীরা অংশ নেয়। 

অভিযানে নিহত নজির উদ্দিনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন, পানের বরজে পুতে রাখা নিহত ফরিদার হাতব্যাগ ও নজির উদ্দিনের কালো অফিসিয়াল ব্যাগ, হত্যার সময় পরিধানকৃত আসামীদের রক্তমাখা জামা কাপড় উদ্ধার করা হয়। এছাড়া আসামীদের কাছ থেকে ৪৩ হাজার টাকা উদ্ধার করে পুলিশ।
 
পুলিশ সুপার জানান, পূর্বপরিচিত হওয়ায় ঘটনার রাতে নজির উদ্দিনের বাড়িতে ঢুকে শাহাবুলসহ অন্য আসামীরা। এক পর্যায়ে নজির উদ্দিনকে শৌচাগারের ভিতরে হাত-মুখ বেঁধে শ্বাসরোধ ও গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এবং তার স্ত্রী ফরিদা খাতুনকে ঘরের মেঝেতে ফেলে গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে নিহত হন। হত্যাকাণ্ডের পর নজির উদ্দিনের ঘর থেকে টাকা, মোবাইল ফোন, ফরিদা খাতুনের ব্যবহৃত কালো ব্যাগের মধ্যে নিয়ে বাড়ির বাইরের গেটে তালা দিয়ে পলিয়ে যায় আসামীরা। 

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের আদালতে তোলা হবে। হত্যাকাণ্ডের ঘটনার আরও তথ্য উদঘাটন করতে আসামীদের রিমান্ডের জন্য আদালতে আবেদন করা হবে।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় আলমডাঙ্গা পৌরএলাকার পুরাতন বাজার পাড়ায় হাত-মুখ বাঁধা অবস্থায় ষাটোর্ধ্ব দম্পত্তি নজির উদ্দিন ও তার স্ত্রী ফরিদা খাতুনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার পরদিন নিহত নজির উদ্দিন-ফরিদা খাতুনের একমাত্র মেয়ে ডালিয়ারা পারভীন শিলা বাদী হয়ে আলমডাঙ্গা থানায় অজ্ঞাত আসামীদের নামে মামলা দায়ের করেন। 

সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২

সালাউদ্দীন কাজল/ এবি/

মন্তব্য করুন: